Categories
খাগড়াছড়ি

প্রতারণা করে বিধবা ভাতা ভোগ করছেন শাহেনা

মোহাম্মদ কেফায়েত উল্লাহ (খাগড়াছড়ি জেলা প্রতিনিধি)

একজন স্মার্ট বিধবার গল্পের সন্ধান পাওয়া গেছে । বিধবার স্বামী একটি বেসরকারি ব্যাংকে চাকুরি করেন।  স্বামীর সাথে শহরের ফ্ল্যাট বাড়িতেই  থাকেন। গ্রামে থাকতে অরুচি ছেলে দুবাই প্রবাসী। মেয়ের জামাই বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্য। 

বোনের জামাই পৌরসভার কাউন্সিলর ও সাবেক প্যানেল মেয়র  এবং ক্ষমতাসীন দলের নেতা। উপজেলা সমাজ সেবা কার্যালয়ের কাগজপত্রে তিনি একজন বিধবা। বিধবার পরিচয়ে স্বাচ্ছন্দ্য তার। বেশ কয়েক বছর ধরে বিধবা ভাতা ভোগ করছেন। এমন ঘটনা বেরিয়ে এসেছে খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাজীপাড়ায়। 

বিশ্বস্তসূত্রে জানা যায়, মাটিরাঙ্গা পৌরসভার কাজীপাড়া নিবাসী মৃত সেকান্দর মিয়ার মেয়ে মোছাঃ শামীমা আক্তার ( শাহেনা), স্বামী- ইমাম উদ্দিন, মাতা – মোছাঃ করিমুন্নেছা বিগত কয়েক বছর ধরে বিধবা  ভাতা ভোগ করছেন। চট্টগ্রাম শহরের ফতেয়াবাদ ও চৌধুরী হাটের মাঝামাঝি ৬ তলা ফ্ল্যাটবাড়িতে  বসবাস করেও বিধবা ভাতা ভোগ করছেন বাবার বাড়ির ঠিকানা মাটিরাঙ্গা পৌরসভার কাজীপাড়া থেকে । 

পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ভোটার হওয়ার সুবাদে এবং বোনের জামাই ওয়ার্ড কাউন্সিলর হওয়ার বিশেষ সুবিধায় বিধবা না হয়েও বিধবা ভাতা ভোগ করে আসছেন কয়েক বছর ধরে। প্রতারণা করে এভাবে বিধবা ভাতা ভোগ করতে থাকায় এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে এ নিয়ে প্রচণ্ড ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে । 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার একজন বাসিন্দা বলেন, নেতার আত্মীয় হওয়ার সুবাদে  বিধবা ভাতা ও দশ টাকা কেজি দামের চালসহ  পৌরসভার সব সুবিধা সে পাচ্ছে। এলাকার দরিদ্র লোকজনের জন্য আসা পৌরসভার সুযোগ- সুবিধা আত্মীয় হওয়ার সুযোগে একজন সামর্থ্যবান প্রবাসীর স্ত্রী হওয়া সত্ত্বেও অনায়াসে পেয়ে যাচ্ছেন।

 অথচ প্রকৃত অনেক বিধবা ভাতা না পেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন ।  নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মাটিরাঙ্গা উপজেলা সমাজ সেবা কার্যালয়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, শামীমা আক্তার (শাহেনা) এর স্বামী থাকার বিষয়টি আমরা স্থানীয় কাউন্সিলরকে বারবার অবহিত করেছি, কিন্তু তিনি আমাদের কথায় কর্ণপাত করেননি।

 বিধবা ভাতা ভোগী মোছাঃ শামীমা আক্তার (শাহেনা) এর বর্তমান স্বামী জসিম উদ্দিনের মোবাইল নম্বরে ফোন করা হলে সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে ফোন কেটে দেন। একাধিকবার চেষ্টা করলেও জসিম উদ্দিন ফোন রিসিভ করেননি।